শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:৫০ অপরাহ্ন

করোনা ভাইরাস
***   সবচেয়ে সাধারণ উপসর্গসমূহ   ***   জ্বর   ***   শুকনো কাশি   ***   ক্লান্তিভাব   ***   কম সাধারণ   ***   উপসর্গসমূহ   ***   ব্যথা ও যন্ত্রণা   ***   গলা ব্যথা   ***   ডায়রিয়া   ***   কনজাংটিভাইটিস   ***   মাথা ব্যথা   ***   স্বাদ বা গন্ধ না পাওয়া   ***   ত্বকে ফুসকুড়ি ওঠা বা আঙুল বা পায়ের পাতা ফ্যাকাসে হয়ে যাওয়া
সংবাদ শিরোনাম :
কালিগঞ্জে করোনা রোগীর সেবায় “ফ্রি অক্সিজেন সার্ভিস এর উদ্বোধন করলেন উপজেলা চেয়ারম্যান সাঈদ মেহেদী কালিগঞ্জের পানিবন্দী পরিবারের মাঝে প্রেরণা’র খাদ্য সামগ্রী বিতরণ দুর্যোগ মোকাবেলায় আইওএম সাতক্ষীরার স্বেচ্ছাসেবক কমিটি গঠন জেলা জাতীয় পার্টির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক খালিদুর রহমানের ইন্তিকাল সাতক্ষীরার প্রত্যান্ত অঞ্চল কি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ! কালিগঞ্জে ১কেজি ৮’শ গ্রাম গাজাসহ একজনকে আটক করেছে পুলিশ আইন শৃংখলা রক্ষার পাশাপাশি করোনা মোকাবেলায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে ……কালিগঞ্জ থানার ওসি দেলোয়ার হুসেন কালিগঞ্জ থানা পুলিশের আয়োজনে ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ উদযাপন কক্সবাজারের স্থানীয় মহিলা এবং মেয়েদের জন্য সেইফ স্পেস চালু করল আইওএম সাংবাদিক ও কলামিস্ট সৈয়দ আবুল মকসুদ এর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ
পাইকগাছায় কাউন্সিলর সহ নতুন করে দুই ব্যক্তি করোনায় আক্রান্ত

পাইকগাছায় কাউন্সিলর সহ নতুন করে দুই ব্যক্তি করোনায় আক্রান্ত

পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি:
পাইকগাছায় এবার পৌরসভা কাউন্সিলর সহ দুই ব্যক্তি নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। এ নিয়ে গত দুই সপ্তাহের ব্যবধানে ৭ ব্যক্তি করোনায় আক্রান্ত হলো। এদিকে করোনা সংক্রমন প্রতিরোধে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সরকারি স্বাস্থ্যবিধি নিষেধ বাস্তবায়নে পৌর ও কপিলমুনি বাজারের ওপর কড়াকড়ি আরোপ করা হয়েছে। উল্লেখ্য, দেশে গত ৮ মার্চ প্রথম করোনা সনাক্ত হলেও অত্র উপজেলায় প্রথম করোনা সনাক্ত হয় ১ জুন। এদিন কপিলমুনির সাংবাদিক তপন কুমার পাল ও শাহাপাড়া এলাকার পুলিশে কর্মরত রমজান আলীর করোনা সনাক্ত হয়। এরপর ১০ জুন কপিলমুনির সাংবাদিক তপন পালের স্ত্রী ও কাশিমনগর গ্রামের রাম প্রসাদ সেন, ১২ জুন প্রতাপকাটী গ্রামের অবসর প্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আব্দুল মান্নান সরদার এবং সর্বশেষ রোববার পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর কামাল আহমেদ সেলিম নেওয়াজ এবং কপিলমুনি এলাকার প্রসেনজিৎ নামে দুই ব্যক্তির কোভিড-১৯ রিপোর্ট পজেটিভ পাওয়া যায় বলে জানান উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ নীতিশ চন্দ্র গোলদার। এ প্রসঙ্গে উপজেলা নির্বাহী অফিসার জুলিয়া সুকায়না জানান, গত দুই সপ্তাহের ব্যবধানে করোনা সংক্রমিত ব্যক্তির সংখ্যা অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে। এখন আমাদের সকলের উচিৎ সরকারি স্বাস্থ্যবিধি নিষেধ মেনে চলা এবং নিজ নিজ বাড়ীতে অবস্থান করা। প্রশাসনের পক্ষ থেকে সংক্রমন প্রতিরোধে পৌর ও কপিলমুনি বাজার সহ গুরুত্বপূর্ণ বাজার সমূহে স্বাস্থ্যবিধি নিষেধ বাস্তবায়নে কড়াকড়ি আরোপ করা হয়েছে। নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের দোকান ছাড়া সব ধরণের ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার জন্য নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। নিজ, পরিবার এবং এলাকার মানুষের সুরক্ষার জন্য সরকারি নির্দেশনা মেনে চলা সকলের উচিত বলে উপজেলা প্রশাসনের এ কর্মকর্তা জানান।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2020 www.satkhiranews24.com
Hosted By LOCAL IT