শুক্রবার, ০৫ মার্চ ২০২১, ০৯:৩২ পূর্বাহ্ন

করোনা ভাইরাস
***   সবচেয়ে সাধারণ উপসর্গসমূহ   ***   জ্বর   ***   শুকনো কাশি   ***   ক্লান্তিভাব   ***   কম সাধারণ   ***   উপসর্গসমূহ   ***   ব্যথা ও যন্ত্রণা   ***   গলা ব্যথা   ***   ডায়রিয়া   ***   কনজাংটিভাইটিস   ***   মাথা ব্যথা   ***   স্বাদ বা গন্ধ না পাওয়া   ***   ত্বকে ফুসকুড়ি ওঠা বা আঙুল বা পায়ের পাতা ফ্যাকাসে হয়ে যাওয়া
সংবাদ শিরোনাম :
কক্সবাজারের স্থানীয় মহিলা এবং মেয়েদের জন্য সেইফ স্পেস চালু করল আইওএম সাংবাদিক ও কলামিস্ট সৈয়দ আবুল মকসুদ এর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ কালিগঞ্জে ২৮ জন ভুয়া মুক্তিযোদ্ধার সনদ বাতিল, যাচাই বাছাই সম্পন্ন। কালিগঞ্জে তথ্য অধিকার আইন ব্যবহারের উপর এক দিনের প্রশিক্ষণ কালিগঞ্জ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের নির্বাচন সম্পন্ন সভাপতি মনি-সম্পাদক তাহের ববি শিক্ষার্থীদের ওপর হামলায় সাতক্ষীরা স্টুডেন্ট সোসাইটির নিন্দা আশাশুনিতে শরিফুল হত্যার মামলায় আটক-২ আশাশুনিতে ট্রলার ডুবে নিখোঁজদের মৃতদেহ উদ্ধার হয়নি ॥ তদন্ত টিম গঠন কালিগঞ্জের ভাড়াশিমলায় বীরমুক্তিযোদ্ধাকে মারপিট ও মিথ্যা মামলায় হয়রানির প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন বিদেশ ফেরত কর্মজীবি প্রবাসীদের তথ্য সংরক্ষণে চালু হলো রেমিমিস
কালিগঞ্জে সম্পত্তি জবর দখল করার পায়তারা ও জীবননাশের হুমকির প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

কালিগঞ্জে সম্পত্তি জবর দখল করার পায়তারা ও জীবননাশের হুমকির প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি :
সাতক্ষীরা কালিগঞ্জ উপজেলার নলতা ইউনিয়নের শিবপুর
গ্রামে সম্পত্তি জবর দখল ও জীবননাশের হুমকির প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলনে
অনুষ্ঠিত হয়েছে। রবিবার সন্ধায় সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে
এই অভিযোগ করেন নলতা শিবপুর গ্রামের হরেন চন্দ্র দাশের পুত্র গোপাল
চন্দ্র দাশ। তিনি তার লিখিত বক্তব্যে বলেন, আমার পিতা হরেন চন্দ্র দাশ ও
কাকা সুনিল চন্দ্র দাশ ও অনিল চন্দ্র দাশ। পৈত্রিক সূত্রে ৬৫৫ দাগ যার
খতিয়ান নং-১০১৮, মৌজা-নলতা, ১২ শতক জমির মালিক এবং আমার বড় কাকা কেনারাম
চন্দ্র দাশ একই খতিয়ান, দাগ, ও একই মৌজায় ১৫ শতক জমি একই গ্রামের লিচু
বালা ঘোষের নিকট থেকে ১৯৮১ সালে কোবালা দলিলের মাধ্যমে খরিদ করে। ৬৫৫
দাগের ১২ শতক জমি লিচু বালা ঘোষ ১৯৮১ সালে নগেন্দ্র চন্দ্র দাশের নিকট
বিক্রয় করেন। উক্ত জমি নগেন্দ্র চন্দ্র দাশ কালিপদ দাশের কাছে ১৯৮৫ সালে
বিক্রয় করেন। উক্ত ৬৫৫ দাগের ১২ শতক জমি ১৯৮৫ সাল থেকে অদ্যাবধি কালিপদ
দাশের সন্তানাদি ভোগ দখল করে আছে। কিন্তু বর্তমানে উক্ত ৬৫৫ দাগের ১২ শতক
জমি জোরপূর্বক নগেন্দ্র চন্দ্র দাশের ৪ পুত্র অনিল চন্দ্র দাশ, উত্তম
চন্দ্র দাশ, ধনু চন্দ্র দাশ ও মৃত্যুঞ্জয় চন্দ্র দাশ এবং নগেন্দ্র চন্দ্র
দাশের ভাই গৌর চন্দ্র দাশ এর পুত্রদ্বয় দুলাল চন্দ্র দাশ ও প্রদীশ চন্দ্র
দাশ জোরপূর্বক সম্পূর্ণ ১২ শতক জমি দখল করে নিয়েছে। উক্ত ৬৫৫ দাগের ১৫
শতক জমি লিচু বালা ঘোষের নিকট থেকে ১৯৮১ সালে কেনারাম চন্দ্র দাসের নিকট
বিক্রয় করেন। তার মধ্যে ৩ শতক জমি নগেন্দ্র চন্দ্র দাশের ৪ পুত্র ও  গৌর
চন্দ্র দাশের ২ পুত্র জোরপূর্বক জবর দখল করে নিয়েছে। সেই সময় থেকে
অদ্যাবধি উক্ত জমিগুলোতে চাষাবাদ করে জীবিকা নির্বাহ করে আসছি। সেই সময়
থেকে আমি ও আমরা কোন উপায় না পেয়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আজিজুল ইসলাম
পাড় এর শরণাপন্ন হই। তখন তিনি উভয় পক্ষকে কাগজপত্র নিয়ে পরিষদে হাজির হতে
বলেন। কিন্তু বিবাদী পক্ষদ্বয় চেয়ারম্যানের নিকট থেকে ১২/১৫ বার বিভিন্ন
টালবাহানা দেখিয়ে কালক্ষেপণ করে এবং কোন প্রকার কাগজপত্র হাজির করতে
পারেনি এবং তারা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের সামনেই আমাদের কয়েক দফা
মারধর করতে উদ্যত হয়। এক পর্যায়ে চেয়ারম্যান ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তি
উক্ত জমিগুলি গত ৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ইং তারিখে আমাদের দখল বুঝিয়ে দেন।
উক্ত জমির বিষয় নিয়ে ৬নং নলতা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ আজিজুল ইসলাম
নায্য বিচার করায় বিবাদী পক্ষদ্বয় চেয়াম্যানের নামে বিভিন্ন প্রকার
মিথ্যা ও বায়োনাট খবর সাজিয়ে মানুষের সামনে উপস্থাপন করছে এবং চেয়ারম্যান
কে সমাজে হেয় প্রতিপন্ন করা গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত আছে। চেয়ারম্যান জমির
দখল বুঝিয়ে দেওয়ার পর থেকে বিবাদীপক্ষদ্বয় এতোটাই সন্ত্রাসী ও হীন মনের
অধিকারী যে, গতকাল বিবাদী পক্ষদ্বয় আমাদের অনেকবার মারধর করে এবং
আমাদেরকে জীবননাশের হুমকি, বসত বাড়ীতে মাদক দ্রব্য ও অবৈধ অস্ত্র রেখে
আমাদেরকে পুলিশ দ্বারা হয়রানি করবে বলে প্রকাশ্যে হুমকি দিচ্ছে। আমরা
যাতে আমাদের বাবা কাকার পৈত্রিক সম্পত্তি রক্ষা, জমিতে শান্তিপূর্ণভাবে
বসবাস ও চাষাবাদ করে জীবন জীবিকা নির্বাহ করতে পারি সে ব্যাপারে আপনাদের
লেখনির মাধ্যমে বিবাদীপক্ষদ্বয়ের যাতে কঠোর শাস্তি পায়, সে জন্য
প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করছি।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2020 www.satkhiranews24.com
Hosted By LOCAL IT