17 January 2018 , Wednesday
Bangla Font Download
সর্বশেষ খবর »

You Are Here: Home » তথ্যপ্রযুক্তি » কালিগঞ্জে মাধ্যমিক স্কুল ও মাদ্রাসার কম্পিউটার শিক্ষা হুমকির মুখে


সাতক্ষীরা নিউজ ২৪ ডটকম :
কালিগঞ্জে মাধ্যমিক স্কুল ও মাদ্রসার কম্পিউটার শিক্ষা হুমকির মুখে। অধিকাংশ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কম্পিউটার অচল অবস্থায় আছে বলে জানান শিক্ষার্থীরা। এজন্য উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ও স্থানীয় ম্যানেজিং কমিটির তদারকির অভাব আছে বলে অভিযোগ অভিভাবকদের। অর্থের বিনিময়ে অদক্ষ, অযোগ্য প্রশিক্ষণ বিহীন শিক্ষক নিয়োগের কারণে প্রতিষ্ঠানের কম্পিউটার সিস্টেম মেরামত এমনকি উইন্ডোজ দেওয়ার মতো অভিজ্ঞতা নেই অনেক শিক্ষকের। সেকারনে প্রতিষ্ঠানের নুনতম কম্পোজ করার জন্য আসতে হয় উপজেলার কোন কম্পিউটার প্রতিষ্ঠানে। অবশ্য এ জন্য অতিরিক্ত অর্থ ভাউচারের মাধ্যমে উঠিয়ে নেন কম্পিউটার শিক্ষক।

খোজ নিয়ে জানা গেছে অধিকাংশ স্কুল ও মাদ্রাসার ছাত্ররা নিয়মিত প্রাকটিক্যাল কম্পিউটার ক্লাস থকে বঞ্চিত হচ্ছে। সে জন্য সময় উপযোগী কম্পিউটার শিক্ষা থেকে পিছিয়ে পড়ছে তারা। এজন্য অভিভাবকরা ডোনেশন নামক ঘুষের কথা উল্লেখ করেছে। সাথে সাথে অনেক প্রতিষ্ঠানে ভুয়া কম্পিউটার শিক্ষক হিসাবে কাজ করারও অভিযোগ উঠেছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন ৮ম শ্রেণীর ছাত্রের কাছে প্রাকটিক্যালি এম এস ওয়ার্ড কি জানতে চাইলে সে বলে ম্যাসেস পাঠাতে হয়। তুমি সপ্তাহে কয়টি কম্পিউটার ক্লাস করো জানতে চাইলে বলে স্যারেরা কম্পিউটার রুমে ঢুকে নায়ক নায়িকাদের ছবি দেখে। এভাবে চলছে উপজেলার মাধ্যমিক স্কুল ও মাদ্রাসার কম্পিউটার শিক্ষা। শিক্ষকদের এমন অবহেলায় সাবজেক্ট পরিবর্তন করতে বাধ্য হচ্ছে ছাত্ররা।

অবাধ তথ্য প্রবাহের এসময় ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার পথে দায়িত্বহীন কর্মকর্তারাই অন্তরায় হয়ে দাড়িয়েছে বলে মনে করেন অভিভাবকরা। সেকারনে তাদের পোস্টিং দাবী করেছে অনেকে। তাদের বক্তব্য দীর্ঘদিন এক জায়গায় চাকুরী করার কারনে অনেক কিছু ম্যানেজ করে নেন শিক্ষকরা। এভাবে চলতে থাকলে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন স্বপ্নই থেকে যাবে মনে করেন অভিভাবকরা।

এব্যাপারে অধ্যাপক গাজী আজিজুর রহমানের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন নিয়মিত আপডেট সফটওয়ার ও নেট সংযোগের অভাবে প্রতিনিয়ত অনেক কম্পিউটার বিকল হয়ে যাচ্ছে। অনেক ছাত্ররা জানেনা কম্পিউটার কি? কি শিখতে হয় তা অনেক শিক্ষক জানে না ছাত্রদের জানার প্রশ্নই উঠেনা।

এজন্য উদ্বিগ্ন অভিভাবক ও সচেতন মহল। তারা মনে করেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার কাজের অন্তরায় এসব শিক্ষক ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। এব্যাপারে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি দানের অনুরোধ করেছে সচেতন অভিভাবক ও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র ছাত্রীরা।

Use Facebook to Comment on this Post

Leave a Reply

Editor : ISHARAT ALI, 01712651840, 01835017232 E-mail : satkhiranews24@yahoo.com, rangtuli80@yahoo.com


Site Hosted By: WWW.LOCALiT.COM.BD