24 January 2018 , Wednesday
Bangla Font Download
সর্বশেষ খবর »

You Are Here: Home » সর্বশেষ সংবাদ » কালিগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের নবগঠিত কমিটির সভাপতিসহ অন্য নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধে মিথ্যে অপপ্রচারের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি :
সাতক্ষীরায় প্রতিহিংসার বশবর্তী হয়ে পদ প্রত্যার্শী কিছু ব্যক্তি কালিগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের নবগঠিত কমিটির সভাপতিসহ নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধে মিথ্যে অপপ্রচার চালাচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। শনিবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এই অভিযোগ করেন উপজেলা ছাত্রলীগের নবগঠিত কমিটির সভাপতি বাজারগ্রাম রহিমপুর গ্রামের শেখ ইব্রাহিম এর ছেলে শেখ শাওন আহমেদ সোহাগ।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে সোহাগ বলেন, বিগত ২০১১ সালে ইয়ার কমিটির ভোটের মাধ্যমে কালিগঞ্জ কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি ও ২০১৩ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর কালিগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও পরবর্তীতে সহ-সভাপতি মনোনিত হই। ওই কমিটির মেয়াদ শেষে আমার সাংগঠনিক কর্মকান্ডে সন্তষ্ট হয়ে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক গত ১৮ নভেম্বর আমাকে সভাপতি করে কালিগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের আংশিক কমিটির অনুমোদন দেন। কিন্তু পদ প্রত্যার্শী প্রতিপক্ষ কিছু চিহিৃত ব্যক্তি নেংরা পন্থা অবলম্বন করে ফেসবুকসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আমাকে শিবির নেতা হিসাবে উল্লেখ করে স্ট্যাটাস দিয়ে সর্বসাধারনকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছে। তারা আমাকে শিবির নেতা বানানোর চক্রান্তের অংশ হিসাবে ছাত্রশিবিরের একটি সমর্থক ফরম ফেসবুকে দেয়ার পাশাপাশি মিডিয়া কর্মীদের কাছে সরবরাহ করেছে। সরবরাহকৃত উক্ত ফরমে শাওন আহমেদ সোহাগ ২০০৯ সালে ধুলিয়াপুর আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির মানবিক বিভাগের ছাত্র এবং রোল নং ৪৫ ছিল বলে উল্লেখ করা হয়েছে। অথচ ভর্তি রেজিস্ট্রার অনুযায়ী ২০০৮ সালে আমি নবম শ্রেণির ছাত্র ছিলাম। আমার শ্রেণি রোল ছিল-২৫। ওই ফরমে যে স্বাক্ষর দেখানো হয়েছে সেটাও আমার নয়। শিবিরের যে ফরম প্রতিপক্ষরা প্রদর্শন করেছে অজ্ঞাতবশতঃ তার দু’টি অংশই অবিচ্ছিন্ন অবস্থায় তারা দেখিয়ে ফেলেছে। কারণ ফরমের একটি অংশ সংশ্লিষ্ট সদস্যকে দেয়া হয়ে থাকে।
তিনি আরো বলেন, বিভিন্ন প্রিন্ট ও অনলাইন সংবাদপত্রে সাহিত্য বি চৌধুরী ও অনিক মেহেদীর উদ্বৃতি দিয়ে আমাকে শিবির আখ্যা দিয়ে সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে। অথচ ২০১৪ সালে যে কমিটিতে সাহিত্য বি চৌধুরী উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক ও অনিক মেহেদী ক্রীড়া সম্পাদক ছিলেন ওই কমিটিতে আমি সহ-সভাপতি ছিলাম। তিনি বলেন, কালিগঞ্জ উপজেলা আ’লীগের সাধারন সম্পাদক সাঈদ মেহেদীর ছেলে অনীক মেহেদী উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি পদ প্রত্যাশী ছিলেন। কিন্তু ঢাকায় থাকার কারেন সাংগঠনিক কার্যক্রমে অংশগ্রহণ না থাকায় অনীক মেহেদী কমিটিতে স্থান পায়নি। এসব কারণে সাঈদ মেহেদী ও তার ছেলে অনীক মেহেদী, তাদের সহযোগিরা ফেসবুকসহ বিভিন্ন মিডিয়ায় মিথ্যে অপপ্রচার দিয়ে আমাকে শিবির নেতা বানানোর পায়তারা শুরু করেছে। নবগঠিত কমিটির সাধারন সম্পাদক ফিরোজ সম্পর্কেও মিথ্যে প্রচারণা চালিয়ে কমিটিকে বির্তকিত করা হচ্ছে।
তিনি বলেন, লেখাপড়ার পাশাপাশি আমারা প্রিয় সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ভীত মজবুত করার জন্য কাজ করে চলেছি। সভাপতি’র পদ পাওয়ার পর একটি মহল জেলা ও কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দকে ভূল মেসেজ দেয়ার জন্য নানমূখী ষড়যন্ত্র করছে ও মিথ্যে প্রচারণা চালাচ্ছে। তিনি প্রতিহিংসার কবল থেকে রক্ষা পেয়ে যাতে সংগঠনকে আরো গতিশীল করতে পারেন সে জন্য কেন্দ্রীয় ও জেলা নেতৃবৃন্দসহ সর্বসাধারনের সহযোগিতা কামনা করেন।

Use Facebook to Comment on this Post

Leave a Reply

Editor : ISHARAT ALI, 01712651840, 01835017232 E-mail : satkhiranews24@yahoo.com, rangtuli80@yahoo.com


Site Hosted By: WWW.LOCALiT.COM.BD